What magicians do



যাদুকরের ব্যবহার্য

খেলা দেখাবার প্রাক্কালে যাদুকরদের কতকগুলি নিয়ম মেনে চলতে হয়। যেমন নানা কথার জাল বিস্তার করে দর্শকদের মােহিত করে রাখতে হবে। এর জন্য পর্ব থেকে ভালভাবে প্র্যাকটিস করে রাখতে হবে। হাত-পা সঞ্চালিত করতে হবে ধীর-স্থিরভাবে, অথচ দ্রুত ভঙ্গীমায়। কারণ দর্শকেরা যাতে কোনপ্রকার আভ্যন্তরীণ রহস্য ধরতে না পারে। খেলা দেখাতে গিয়ে কোন খেলা দেখাব—এরকম দ্বিধাবােধ হাতের কৌশল দেখানাের সময় হাতের দিকে বার বার তাকানাে যাদুকরের পক্ষে খুবই ক্ষতিকারক। এর ফলে দর্শকদের মনে সন্দেহ দেখা দিলে খেলা দেখানাের আনন্দটাই নষ্ট হয়ে যাবে এবং দর্শক-সাধারণের সম্মানও নষ্ট হতে পারে।

বচনভঙ্গী স্পষ্ট হতে হবে। এছাড়া রঙ্গমঞ্চে দাঁড়িয়ে খেলা দেখাতে গেলে যাদুকরকে পােশাকের প্রতিও নজর দিতে হবে। সাধারণ কোনাে ঘরােয়া অনুষ্ঠানে বা বন্ধু-বান্ধবের মজলিসে স্বাভাবিক পােশাকে খেলা দেখানাে গেলেও আসরে দাঁড়িয়ে খেলা দেখাতে হলে বেশ জাঁকজমক পূর্ণ পােশাক পরতে হবে। মনে রাখতে হবে—বচনভঙ্গীর দ্বারা। যেমন দর্শকদের দৃষ্টিকে আকর্ষিত করতে হবে, সেইরকম পােশাকের দ্বারাও দর্শকদের দৃষ্টিকে আকর্ষিত করে রাখতে হবে। সুতরাং দর্শকদের মন ও দৃষ্টিকে আচ্ছন্ন করাই যাদুকরের সর্বপ্রথম কৌশল। এই কৌশলের দ্বারাই যাদুকরের অন্যান্য খেলার কৌশলগুলি দর্শকদের মন ও বুদ্ধির অগােচর হয়ে পড়ে।।

খেলা দেখাবার সময়সীমার মধ্যে যাদুকরকে বিভিন্ন ধরনের পােশাক পরিবর্তন। করতে হবে। এই ব্যাপারটি যাদুকরের সহকারী বা সহকারিনীর ক্ষেত্রেও যে প্রযােজ্য, সে কথা মনে রাখতে হবে। যাদুকরের পােশাকের আরও একটি বিশেষত্ব হলগুপ্তি পকেট। এটি তার সুবিধানুযায়ী দর্জিকে অর্ডার দিয়ে করিয়ে নিতে হবে। এছাড়া যাদুকরের সাহায্যের জন্য প্রয়ােজন আবহসঙ্গীত ও বৈদ্যুতিক আলাের নানাপ্রকার কেরামতি। অভিজ্ঞ যাদুকরেরা তাদের প্রতিটি খেলা দেখানাের সঙ্গে সঙ্গে তার পরিবেশ ও পরিস্থিতি অনুযায়ী এটি পূর্ব থেকেই নিদিষ্ট করে রাখবেন। এই দুটি জিনিস যাদুপ্রদর্শনীকে আরও বেশী করে সাফল্যমণ্ডিত ও দর্শকমণ্ডলীকে মুগ্ধ ও আনন্দিত করতে সাহায্য করে।

এবার আসছি যাদুদণ্ডের কথায়। যে কোনােও যাদুকরদের কাছে এটি যেন এক। অপরিহার্য জিনিস। কারণ প্রায় সব যাদুকরেরাই জানেন—দর্শকমণ্ডলীদের ধারণা ওই যাদুদণ্ডটি কোনাে মন্ত্রপুতঃ করা আছে বা ওই দণ্ডটির মধ্যে কোনাে মৃত প্রাণীর হাড় লকানাে আছে, যা মন্ত্রপুতঃ করে ভৌতিক রহস্যাবৃত করা আছে। কিন্তু তা ভুল। এটি। এক সাধারণ দণ্ড—যা কাঠ, বেত বা প্লাস্টিকেরও হতে পারে। দর্শকদের দৃষ্টি আকর্ষণ। করার ক্ষেত্রে যাদুকর নিজের মনােমত তৈরী করে রং করিয়ে নিতে পারেন। তবে এটি সাধারণতঃ এক ইঞ্চি ব্যাসযুক্ত এক ফুট সাইজের লম্বা হয়ে থাকে। এর ওপর কালাে রং করে, দণ্ডটির দুই প্রান্তের আধ ইঞ্চি উপরে এক ইঞ্চি পরিমাণ সাদা রং করিয়ে নিলেই যাদুদণ্ড তৈরী হয়ে যাবে। এবং এটি দেখতেও বেশ সুন্দর হয়।। কোনাে কোনাে যাদুকর মড়ার মাথা খুলিও ব্যবহার করে থাকেন। বর্তমানে প্রকৃত মড়ার মাথার খুলি পাওয়া দুরূহ ব্যাপার। তাই খুলির সাহায্যে খেলা দেখাবার ইচ্ছা থাকলে, যাদুকরকে কোনাে মৃতশিল্পীর সাহায্যে মাটি অথবা প্লাষ্টারের একটি মডার মাথার খুলি তৈরী করিয়ে এমনভাবে রং করিয়ে নিতে হবে, যাতে দর্শক-সাধারণ বুঝতে পারেন যে, ওটা সত্যি কোনাে মড়ার মাথার খুলি।

যাদুবিদ্যা প্রদর্শন করতে হলে যাদুকরদের আরও একটি জিনিসের বিশেষভাবে প্রয়ােজন। হয়, তা হল--টেবিল। এই টেবিলে খেলা দেখাবার জন্য নানা জিনিসপত্র বা যন্ত্রপাতি রাখার প্রয়ােজন হয়। এক্ষেত্রে একাধিক বিভিন্ন আকৃতির টেবিলের প্রয়ােজন হতে পারে। এই টেবিলগুলি কোনােটি চার পায়া, কোনােটি তিন পায়া বিশিষ্ট হতে পারে। এছাড়া একটি স্ট্যাণ্ড (পায়া) বিশিষ্ট টেবিলও হতে পারে, যার নিচের দিকে তিনটি অংশে বিভক্ত হয়ে টেবিলটিকে দাঁড় করিয়ে রাখতে সাহায্য করে।

অনেক সময় যাদুকরকে ম্যাজিক শাে-এর জন্য বিভিন্ন দূর-দূরান্তে যেতে হয়। এই সব সরঞ্জামগুলি সঙ্গে নিয়ে যাবার ক্ষেত্রে অনেক অসুবিধা দেখা দিতে পারে। সেইজন্য এই টেবিলগুলিকে যাদুকর নিজের সুবিধামত ফোল্ডিং বা প্যাচ সিস্টেম করিয়ে নিতে পারেন এবং খেলার কৌশল হিসাবে ব্যবহার করার জন্য ওই পায়াগুলির কোনটি ফাপা ও ছিদ্রযুক্ত হবে, তা যাদুকরের নির্দেশেই তৈরী হয়ে থাকে।

এছাড়াও এইসব টেবিলে নানাপ্রকার কৌশল ও গােপন পকেট করা থাকে। এই গুপ্তিপকেটগুলােকে ম্যাজিকের ভাষায় বলা হয় সারভেন্ট্রি। টেবিলের ওপর পাতা থাকবে কালাে, গাঢ় নীল অথবা লাল ভেলভেটের কাপড় বা পর্দা। এই পর্দা টেবিলের যে অংশটি দর্শকদের দিকে রয়েছে, সেদিকে বেশিরভাগ অংশ ঝুলে থাকবে। পর্দার চারধারে জরির তৈরী বর্ডার বা ঝালর করা থাকবে। এছাড়া দর্শকদের দিকে ঝুলে থাকা পর্দার অংশটির ওপর জরির সাহায্যে যাদুকরের নাম লেখা থাকবে। টেবিলের ওপর গর্ত করে যে গুপ্তিপকেট (সারভেন্টি) তৈরী করা হয়, সেগুলি শক্ত জিন কাপড়ের সাহায্যে তৈরী করা হয়। খেলা দেখাবার সময় যাদুকরের প্রয়ােজনীয় জিনিসপত্র এরই মধ্যে লুকানাে থাকে।

Post a Comment

0 Comments