A magic with television - a wonderful magic

টেলিভিশনের পর্দায় তাস   

মঞ্চে গড়িয়ে আপনি প্রথমে দর্শকদের উদ্দেশে বলুন—সমবেত দর্শকমণ্ডলী! এবার আমি আপনদের সামনে যে খেলাটি দেখাব, সেটাও খুবই মজার। আশা করি খেলাটি আপনাদের খুবই আনন্দ দেবে। -

আপনারা নিশ্চয়ই জানেন, সময়ের সঙ্গে তাল মিলিয়ে আমাদের এই যুগ ধীরে। ধীরে এগিয়ে চলেছে প্রগতির দিকে। যা ছিল একদিন কল্পনায়, আজ তা বাস্তব। যেমন ধরুন---আজ চাদের বুকে মানুষ গিয়ে পৌঁছেছে। হাজার হাজার মাইল দূরের মানুষের সঙ্গে টেলিফোনের সাহায্যে ঘরে বসে কথা বলতে পারছি। রেডিওর মাধ্যমে পৃথিবীBsর। বিভিন্ন প্রান্তের খবর ঘরে বসে পাই। সেদিন কি আমরা ভেবেছিলাম—দূর একটু একটু করে আমাদের কাছে এগিয়ে আসবে। কিন্তু বিস্ময়ের ওপর আরও বিস্ময় হল দূরদর্শন বা টেলিভিশন। এই টেলিভিশনের মাধ্যমে শুধু পৃথিবীর বিভিন্ন প্রান্তের খবরই নয়, পৃথিবীর এক প্রান্ত থেকে অপর প্রান্ত আমরা ঘরে বসে দেখতে পাই। এক কথায় পৃথিবীর বিভিন্ন দেশ, শহর, নগর, প্রান্তর প্রায় সব কিছুই এই টেলিভিশনের সাহায্যে আমাদের ঘরের চার দেওয়ালের মধ্যে এসে। ঢুকে পড়েছে। তাই বিজ্ঞানের দ্বারা আবিষ্কৃত টেলিভিশন যন্ত্রটির সাহয্যেই আমি আপনাদের একটা খেলা দেখাবার ইচ্ছা প্রকাশ করেছি। 

আপনারা দেখতে পাচ্ছেন---এই মঞ্চের ওপর একটা টেলিভিশন বসানাে রয়েছে। এটি কিন্তু সাধারণ টেলিভিশন নয়, এটা আমাদের মত যাদুকরের জন্য বিশেষভাবে তৈরী। এই যন্ত্রের সাহায্যে কোনাে কিছু দেখাতে হলে প্রেরক যন্ত্রের প্রয়ােজন হয় না; * এটা যাদুকরদের হুকুম মাফিক চলে। সুতরাং বুঝতে পারছেন—সাধারণ টেলিভিশনের চেয়ে এটা কতখানি শক্তিশালী। তার প্রমাণ আমি আপনাদের সামনে দেব।' 

 এই পর্যন্ত বলে এক প্যাকেট তাস নিয়ে দর্শকবৃন্দের কাছে গিয়ে যে কোনাে একজনকে তিনখানি তাস টানতে বলুন। দর্শকটির তাস টানা হলে তাকে একখানা তাস। রেখে বাকী দুটি অন্য দু’জন দর্শককে ভাগ করে দিতে বলুন। এরপর আপনি মঞ্চে এসে বলুন–দর্শক মহােদয়গণ! আমার হাতের তাসের মধ্যে থেকে আপনাদের মধ্যে তিনজন তিনখানা তাস ভাগ করে নিয়েছেন। কি কি তাস নিয়েছেন, তা কিন্তু আমি জানি না। এবং আমার জানার কথাও নয়—এটা নিশ্চয়ই আপনারা বুঝতে পেরেছেন। তবে তাসগুলি যে কি কি, তা আমার এই যাদু টেলিভিশন কিন্তু সব জানে। আপনাদের। হাতের তাসগুলি এই টেলিভিশনের পর্দায় দেখতে পাবেন। এবার আপনারা আমার । টেলিভিশনের দিকে মনােযােগ দিয়ে লক্ষ্য করুন আপনাদের হাতের তাসগুলি দেখ। যায় কিনা। এবার আপনি বলুন-রেডী, ওয়ান-টু-খ্রী। বলার সঙ্গে সঙ্গে টিভি-র পর্দায় প্রথমে একটি তাস দেখা যাবে। সঙ্গে সঙ্গে আপনি বলুন আমার যাদু টিভি-র পর্দায় যে তাসটি দেখা যাচ্ছে, সেটি যাঁর কাছে আছে তিনি তাসটি ফেরৎ দিয়ে যান। দর্শকটি তাস ফেরৎ দিলে, আবার আপনি বলুন—এবার দ্বিতীয় তাপ। রেডি, ওয়ান-টু-থ্রী। সঙ্গে সঙ্গে টিভির পর্দায় আরও একটি তাস দেখা গেল। আপনিও বলুন—দ্বিতীয় তাসটি যাঁর কাছে আছে, তিনি আমাকে ফেরৎ দিয়ে যান। দ্বিতীয় দশকটি তাস ফেরৎ দিয়ে যাবার পর তৃতীয় অর্থাৎ শেষ খেলাটিও অনুরূপভাবেই দেখাবেন। এইভাবে দর্শকরা টিভি-র পর্দায় নদের তাসগুলি দেখে বিস্মিত ও আনন্দিত হয়ে হাততালি দিয়ে উঠবেন।

এবার কোন কৌশলে খেলাটি দেখানাে হল, সে সম্বন্ধে আলােচনা করা যাক। টেলিভিশন এবং তাসের প্যাকেট—এই দুটির মধ্যে কৌশল করা আছে। তাসের প্যাকেটটি হবে এক বিশেষ ধরণের প্যাকেট। যার মধ্যে সাধারণতঃ বাহান্নখানা তাসের পরিবর্তে একখানা কম তাস থাকবে। এই বিশেষ ধরণের প্যাকটটি কিভাবে তৈরী, সে কথাই প্রথমে আলােচনা করি। আপনি সতেরাে প্যাকেট তাস কিনে এনে যে তিনটি তাস নিয়ে খেলা দেখাবেন, অর্থাৎ মনে করুন—চিড়িতনের নয়, রুহিতনের সাহেব এবং ইস্কাবনের পাঁচ। এই তিনরকমের তাস সতেরােটি করে বার করে নিন। এরপর প্রথমে চিড়িতনের নয়, তারপর রুহিতনের সাহেব এবং পরে ইস্কাবনের পাঁচ রেখে সাজান। পুনরায় চিডিতনের নয়, রুহিতনের সাহেব ও ইস্কাবনের পাঁচ নিয়ে পর পর সাজাতে থাকুন। এইভাবে তিন রকমের সতেরােটি করে তাস সাজানাে হয়ে গেলে একান্না খান তাসের একটি প্যাকেট তৈরী হয়ে যাবে। এই বিশেষ ধরণের তাসের প্যাকেটটিকে যাদুকরদের ভাষায় বলা হয় স্ত্রী ওয়ে প্যাক (Three way pack) এটি বাজারে অর্ডার দিয়েও তৈরী করাতে পারেন। সুতরাং বুঝতেই পারছেন, এই ধরনের প্যাকেট থেকে কোনাে একজন দর্শককে। এক জায়গা থেকে তিনটি তাস টানতে বললে স্বাভাবিকভাবেই তিন রকমের তিনটি তাস তার হাতে যেতে বাধ্য। বিশেষ করে এই ধরণের খেলায় একজন দর্শককেই এক জায়গা থেকে তিনটে তাস টেনে ভাগ করে নিতে বলা হয়। কারণ তিনজন দর্শককে দিয়ে তাস টানালে তারা যদি বিভিন্ন জায়গা থেকে তাস টেনে থাকেন, তবে খেলা দেখাতে গিয়ে আপনি বেকায়দায় পড়ে যাবেন। সুতরাং খেলা দেখাবার সময় যে কোনাে একজন দর্শককে দিয়ে যে কোনাে একই জায়গা থেকে তিনটে তাস টেনে নিয়ে তিনজনে ভাগ করে নিতে বলবেন। এতক্ষণ তাসের কৌশল সম্বন্ধে আলােচনা করা হল। এবার টেলিভিশনের কৌশল সম্বন্ধে আলােচনা করা হচ্ছে। মঞ্চে যে টিভি-টি দেখা যাবে অর্থাৎ যে টিভি-টি দিয়ে আপনি খেলা দেখাবেন, সেটি যাদুকরের পরিকল্পনায় তৈরী এক বিশেষ ধরণের টিভি। কাঠ দিয়ে টেলিভিশনের আকৃতিতে একটা বাক্স তৈরী করিয়ে নিন। সত্যিকারের টিভি-র মতাে সুন্দর করতে হলে রেডিও নভ-এর মত ২-৩টি নভ (NOV) লাগিয়ে ভালভাবে রং করে নিতে পারেন। এতে তিনটি প্রীং রােলারের দরকার। এই রােলারগুলির সঙ্গে সাদা কাপড় আটকানাে থাকবে। তিনটি কাপড়ই কিন্তু টিভির সামনের দিকে জানালার মতােকাটা খােপটির চেয়ে বড় হওয়া চাই। প্রীং-রােলার তিনটি পাশাপাশি বক্সের ভেতর লাগানাে থাকবে এবং এই রােলারের সঙ্গেই কাপড় গুলি আটকানাে থাকবে। এবার প্রথম প্রীং-রােলারের সঙ্গে । । । আটকানাে কাপড়টি সাদাই থাকবে। যাতে দর্শকদের মনে হবে টিভিটি বন্ধ আছে। দ্বিতীয় স্প্রীং-রােলারের কাপড়টিতে আঁকা । থাকবে একটি চিড়তনের নয়, তৃতীয় - শ্রীং-রােলারের কাপড়টিতে আঁকা। থাকবে একটি রুহিতনের সাহেব, এবং শেষ যে কাপড়টি কোনাে শ্রীং-রােলারের সঙ্গে যুক্ত থাকবে না। সেটি উক্ত তিনটি কাপড়ের পিছনদিকে স্থায়ীভাবে । আটকানাে থাকবে এবং ওই কাপড়টিতে আঁকা থাকবে ইস্কাবনের পাঁচ। আরও পরিষ্কার করে জানাচিছ—প্রথম রােলারের কাপড়টি থাকবে সাদা, দ্বিতীয় রােলারে চিড়িতনের নয় আঁকা, তৃতীয় রােলারে রুহিতনের সাহেব আঁকা এবং শেষের স্থায়ীভাবে আটকানাে কাপড়টিতে থাকবে ইস্কাবনের পাঁচ আঁকা। এই আঁকার কাজগুলি আর্টিস্ট দিয়ে করিয়ে নেবেন।

১। প্রীং রােলার
 ২। সামনের পর্দা
৩। প্রথম সাদা কাপড়।
 ৪। চিড়িতনের আট আঁকা কাপড
৫। রুহিতনের সাহেব আঁকা কাপড়
 ৬। ইস্কাবনের পাঁচ আঁকা স্থায়ী কাপড় 
৭। ক্লিপ সিস্টেম।
 ৮। সুতাে যাতায়াতের ছিদ্র
 ৯। ফাকা পায়ার ভিতর দিয়ে সুতা।।
 ১০ সুতাের প্রান্ত সহযােগীর জন্য।

১। মঞ্চের উপর রাখা যাদুকরদের বিশেষ ধরণের টিভি এবং তার পর্দায় প্রতিফলিত তাসের চিত্র স্প্রীং-রােলার তিনটির ঠিক নিচেই থাকবে তিনটি ক্লীপ সিস্টেম। এই ক্লীপ তিনটির সঙ্গে প্রথমদিকের কাপড় তিনটি টান টান করে আটকানাে থাকবে। যেমন—সব শেষের ইস্কাবনের পাঁচ তাঁকা কাপড়টি স্থায়ী, সামনের রুহিতনের সাহেব আঁকা কাপড়টি তৃতীয় ক্লীপের সঙ্গে যুক্ত, তার সামনের চিড়িতনের নয় আঁকা কাপড়টি দ্বিতীয় ক্লীপের সঙ্গে যুক্ত, একেবারে সামনের প্রথম সাদা কাপড়টি থাকবে প্রথম ক্লীপের সঙ্গে যুক্ত। এই সামনের সাদা কাপড়টিকেই দর্শকেরা টিভি-র পর্দা বলে মনে করবেন। পূর্বপৃষ্ঠার চিত্রটি দেখলে আরও ভাল ভাবে বুঝতে পারবেন। টিভি-র পেছন দিকে থাকবে একটা ছােট ছিদ্র। টিভি-র ভেতরে রােলারের ঠিক নিচে যে ক্লীপ তিনটির সঙ্গে কাপড়-আটকানাে থাকবে, সেই ক্লীপের সঙ্গে তিনগাছি সরু ও শক্ত সুতাে আটকানাে থাকবে। এরজন্য শক্ত নাইলনের সুতাে ব্যবহার করতে পারেন। এবার ক্লীপের সঙ্গে সুতাে তিনটি টিভি-র পিছনের ছােট্ট ছিদ্রটি দিয়ে বাইরের দিকে বেরিয়ে আসবে। 

এরপর যে টেবিলটির উপর টিভি-টি বসানাে থাকবে, সেই টেবিলটির পেছনের দিকের একটি পায়া ফাপা থাকবে। এর ফলে টিভির পিছনের ছিদ্র দিয়ে বাইরে বেরিয়ে আস সুতাে তিনটি টেবিলের মাপা পায়ার মধ্যে দিয়ে বেরিয়ে একেবাৰে গ্ৰীণরুমে। চলে যাবে সহকর্মীর হাতে। সুতাে তিনটি কি ভাবে বেরিয়ে গ্রীণ রুমে যাচ্ছে, তা চিত্রটি দেখলে বুঝতে পারবেন। 

গ্রীণরুমে সহকারীর হাতে সুতাের যে প্রান্তগুলি ধরা থাকবে, তাতে এক দুই-তিন করে গিঁট দিয়ে চিহ্ন তৈরী করে দেবেন। তাতে করে সহকর্মীর বুঝতে অসুবিধে হবে যে, একটা গিঁট দেওয়া সুতােটি টান দিলে ক্লীপটি আলগা হয়ে সাদা কাপড়টি চোখের পলকে স্প্রীং-রােলারে গুটিয়ে গিয়ে চিড়িতনের নয় দেখা যাবে। দু’টি গিট দেওয়া সুতােটিতে টান দিলে দ্বিতীয় ক্লীপটি আলগা হয়ে চোখের পলকে কাপড়টি গুটিয়ে গিয়ে রুহিতনের সাহেব দেখা যাবে। অনুরূপভাবে তিনটি গিট দেওয়া সুতােয় টান দিলে তৃতীয় ক্লীপটি আলগা হয়ে কাপড়টি গুটিয়ে গিয়ে ইস্কাবনের পাঁচ দেখা যাবে। 

এইভাবেই খেলা দেখাবার সময় আপনি ওয়ান-টু-থ্রী বলার সঙ্গে সঙ্গে গ্রীণরুমের ভেতর থেকে সহকারী এক-দুই-তিন নম্বর অনুযায়ী গিট দেওয়া এক একটি সুতাে ধরে টান দিতে থাকবে এবং সেই সঙ্গে এক-একটি ক্লীপ আগা হয়ে কাপড়গুলি গুটিয়ে গেলে পর পর তাসগুলি ওই টিভি-র পর্দায় দেখা যাবে। যদিও এক-একটি কাপড় গুটিয়ে যাবার পর একটু করে ভেতরে সরে যাবে, তবুও দর্শকরা দূর থেকে এই ব্যাপারটা মােটেই বুঝতে পারবেন না। তারা ভাববেন হয়তাে একই পর্দায় তাসগুলি।

 পরে পর দেখা যাচ্ছে। খেলাটি ভালভাবে অভ্যাস করে নিয়ে ঠিক মতাে দেখাতে পারলে দর্শকরা খুবই আনন্দিত ও বিস্মিত হবেন সন্দেহ নেই।।

Post a Comment

0 Comments